সর্বশেষ সংবাদ
Home » রাজশাহী » বগুড়া শাজাহানপুর মহাসড়কে লাশের মিছিল-কার্যকর ব্যবস্থা নেই হাইওয়ে ও ট্রাফিক পুলিশের।

বগুড়া শাজাহানপুর মহাসড়কে লাশের মিছিল-কার্যকর ব্যবস্থা নেই হাইওয়ে ও ট্রাফিক পুলিশের।

বগুড়া শাজাহানপুর মহাসড়কে লাশের মিছিল-কার্যকর ব্যবস্থা নেই হাইওয়ে ও ট্রাফিক পুলিশের।

মাসুম হোসেন, স্টাফ রিপোর্টারঃ বগুড়া শাজাহানপুর ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কে অহরহ ঘটছে সড়ক দূর্ঘটনা। সড়কে ফিটনেস বিহীন ও রুট পারমিট বিহীন যান চলাচল ও অদক্ষ্য চালকের দৌরাত্বে প্রাণ হারাচ্ছে যাত্রী এবং পথচারীরা। দূর্ঘটনা নিয়ন্ত্রনে কার্যকর ব্যবস্থা নেই হাইওয়ে ও ট্রাফিক পুলিশের।
জানা গেছে, শাজাহানপুর ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কটি দূঘটনা প্রবন মহাসড়ক। এই মহাসড়কে অহরহ ঘটছে সড়ক দূর্ঘটনা। নতুন বছরের ১ম দিনে এই মহাসড়কের নইমাইল জামালপুরে বগুড়ার লোকাল বাস ও কার্গো ট্রাকের সংঘর্ষে প্রাণ হারিয়েছেন ৬জন। ঘটনার দিনই মারা যায় ৪জন ও পরবর্তিতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরো ২জন মারা যায়। এঘটনায় হাইওয়ে পুলিশ বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছে। এ ঘটনার প্রায় ১ মাস পূর্বে শাজাহানপুর ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কের সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত ১ব্যক্তির অজ্ঞাত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনার কিছুদিন পর ফটকি ব্রীজে প্রাণ হারায় এক মোটর সাইকেল আরোহী। প্রায় দেড় মাস পূর্বে আড়িয়াবাজার কাটাবাড়িয়া এলাকায় এক স্কুল ছাত্রী সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত হয়। কয়েক মাস পূর্বে শাজাহানপুর থানার সামনে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত হন এক পুলিশ সদস্য ও অপর এক দূর্ঘটনায় নিহত হন মোটর সাইকেল আরোহী সেনাসদস্য ও তার শিশু সন্তান। জেএসসি পরিক্ষা চলাকালীন সাজাপুর ফুলতলা মাদরাসার সামনে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত হন ব্যাটারি চালিত থ্রী-হুইলার চালক। এ ঘটনার প্রায় ১মাস পর সাজাপুর টিএমএস পাম্পের সামনে ট্রাকের ধাক্কায় প্রাণ হারায় এক পথচারী।
নয়মাইল জামালপুর সড়ক দূর্ঘটনার প্রতক্ষ্যদর্শিরা জানান, কার্গো ট্রাকের সঙ্গে লোকাল বাসটির মুখোমুখি সংঘর্ষ হতেই বাসটি দুমড়ে- মুচড়ে যায়। এতে বাসের যাত্রীরা বাস থেকে ছিটকে পড়ে যায়। ঘটনাস্থলেই কার্গোচালক মারা গিয়েছিল। এসব লক্কর-ঝক্কর লোকাল বাস যাত্রী নিয়ে মহাসড়কে চলতে থাকলে দূর্ঘটনার পরিমাণ আরও বেড়ে যাবে।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক উপজেলা বাসী জানান, নিষিদ্ধ হওয়া যানবাহন গুলো পার পেয়ে যাচ্ছে পুলিশের চাঁদাবাজিতে। হাইওয়ে পুলিশকে সড়কে অভিযান চালাতে দেখা গেলেও তারা চাঁদাবাজি করা ছাড়া ফিটনেস ও রুট পারমিট বিহীন যানের কোন ব্যবস্থা নেয়না। চালকদের ড্রাইভিং লাইসেন্সও যাচাই করেনা। উপজেলার বনানী পর্যটন মোটেলের সামনে ট্রাফিক পুলিশ নিয়মিত চাঁদা আদায় করে।
ফিটনেস ও রুট পারমিট বিহীন যানবাহনের চালকদের সঙ্গে কথা বললে নাম প্রকাশ না করার শর্তে তারা জানান, ট্রাফিক পুলিশ ফাঁড়িতে তারা মাসিক চাঁদা দেয়। তাদের গাড়ি রাস্তায় না চললে পুলিশ টাকা থেকে বঞ্চিত হবে।
বগুড়া কুন্দর হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ কাজল জানান, পহেলা জানুয়ারি শাজাহানপুর উপজেলার নয়মাইল জামালপুরের সড়ক দূর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৬জন হয়েছে। গাড়ি ২টি আটক রয়েছে। হাইওয়ে পুলিশ বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছে।
বগুড়া ট্রাফিক পুলিশ পরিদর্শক বিকর্ণ মোবাইল ফোনে জানান, মহাসড়কে নিয়মিত অভিযান চালানো হয়। ফিটনেস বিহীন যানবাহন পাওয়া গেলে আইননানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্তব্য

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*