Logo
সংবাদ শিরোনাম :
ফাপোর আন্তঃ ইউনিয়ন ফুটবল টুর্নামেন্টে অনুষ্টিত। টুঙ্গিপাড়া গ্রাম থেকে বিশ্বমানবতার নেত্রী ছাত্রদলে মিছিলে ছাত্রলীগের হামলার প্রতিবাদে বগুড়া জেলা ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল নওগাঁয় ভুট্টাক্ষেত থেকে শিশুর হাত-পা বাঁধা লাশ উদ্ধার গাজীপুরে গোডাউনে মিলল টিসিবি পণ্য চীনে ১৩৩ যাত্রী নিয়ে বিমান বিধ্বস্ত বগুড়ায় পিকনিকে হামলা করে যুবককে কুপিয়ে হত্যা একশত টাকা মূল্যমানের প্রাইজ বন্ডের ১০৬তম ‘ড্র’ অনুষ্ঠিত !! বগুড়া শহরে প্রথম চার তারকা হোটেল নাজ গার্ডেন বিক্রি বগুড়ার দুপচাঁচিয়া উপজেলার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের নেত্রী মাহবুবা নাসরিন রুপাকে জেলা আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার




মেয়াদ উত্তীর্ণ ওষুধ সহ আটক ফার্মেসির মালিককে ১৫১ ধারায় আদালতে প্রেরণ!

প্রতিবেদকের নাম :
আপডেট করা হয়েছে : শুক্রবার, ১১ মে, ২০১৮

মাসুম হোসেন, স্টাফ রিপোর্টারঃ বগুড়া শাজাহানপুর উপজেলার মাঝিড়া বন্দরের আদর্শ ফার্মেসি থেকে মেয়াদ উত্তীর্ণ ওষুধ উদ্ধার করা হয়েছে। ওষুধ বিক্রেতা সাগর ইসলাম মিলনকে গতকাল ১৫১ ধারায় আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ। এতে স্থানীয়দের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।
শাজাহানপুর থানার এসআই রামজীবন ভৌমিক জানান, ওই ফার্মেসি থেকে এক সেনাসদস্য কিছু ওষুধ ক্রয় করেছিল এবং সেগুলো মেয়াদ উত্তীর্ণ ছিল। পরবর্তিতে কয়েকজন সেনা সদস্য তাকে আটক করে পুলিশকে খবর দিলে ওষুধসহ তাকে থানায় নিয়ে আসা হয়। পরে ১৫১ ধারায় তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। পরবর্তিতে তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
ঘটনার প্রতক্ষ্যদর্শীরা জানান, গত বৃহস্পতিবার বিকেলে পলিথিন ব্যাগে মোড়ানো কিছু মেয়াদ উত্তীর্ণ ওষুধসহ কয়েকজন সেনা সদস্য আদর্শ ফার্মেসির মালিক সাগর হোসেন মিলনকে আটক রেখে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ এসে ওই ওষুধগুলোসহ তাকে থানায় নিয়ে যায়।
সুশাসনের জন্য নাগরিক(সুজন)’র শাজাহানপুর উপজেলার সহ-সভাপতি এম শাহীন আলমসহ অনেকে জানিয়েছেন, মেয়াদ উত্তীর্ণ ওষুধ সেবন করায় প্রাণহানি ঘটতে পারে এধরণের অপরাধীদের কঠিন শাস্তি হওয়া দরকার। কিন্তু আমাদের থানা পুলিশ ওই ওষুধ বিক্রেতাকে ১৫১ ধারায় আদালতে প্রেরণ করেছে অপরেিদক এই ধারার সঙ্গে তার অপরাধের কোন সম্পর্কই নেই। এতে পার পেয়ে যাচ্ছে ওষুধ অপরাধীরা।
শাজাহানপুর থানার ওসি জিয়া লতিফুল ইসলাম জানান, ফার্মেসির মালিককে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, সিআরপিসি ১৫১ ধারায় উল্লেখ আছে যে, কোন পুলিশ অফিসার যদি কোন আমলযোগ্য অপরাধ সংঘটনের কুমতলবের কথা জানতে পারেন এবং তার নিকট যদি প্রতীয়মান হয় যে এই অপরাধ সংঘটন অন্যভাবে নিবারণ করা যাবে না, তাহলে তিনি আদালতের আদেশ ব্যতিত সংশ্লিষ্ট কুমতলবি ব্যক্তিকে গ্রেফতার করতে পারেন।

মন্তব্য

মন্তব্য





এই ধরনের আরও খবর

ফেসবুকে আমরা




Theme Created By ThemesDealer.Com