সর্বশেষ সংবাদ
Home » রাজশাহী » আ’লীগ চায় জয় আর বিএনপি চায় পুনরুদ্ধার

আ’লীগ চায় জয় আর বিএনপি চায় পুনরুদ্ধার

আ’লীগ চায় জয় আর বিএনপি চায় পুনরুদ্ধার

মাসুম হোসেন, স্টাফ রিপোর্টার: আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে সম্ভাব্য প্রার্থীদের প্রচারণায় মুখরিত হতে শুরু করেছে নির্বাচনী এলাকা ৪২ (বগুড়া- ৭ আসন)। জেলার গাবতলি ও শাজাহানপুর উপজেলা নিয়ে এই আসন। গাবতলি উপজেলার বাগবাড়ি গ্রামে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল(বিএনপি)’র প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের জন্মভূমি হওয়ায় এই আসনটি বিএনপির দূর্গ বলে পরিচিত। এই দূর্গে আঘাত হানার প্রস্তুতি নিচ্ছে আওয়ামীলীগ। বর্তমানে আসনটি ক্ষমতায় রয়েছে জাতীয় পার্টি এবং এরই ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে চায় তারা।
জানাগেছে, বিএনপির দূর্গ বগুড়া- ৭ আসনে পরপর তিনবার নির্বাচিত হয়ে বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া প্রধানমন্ত্রির দায়িত্ব পালন করেছেন। দলীয় নেতা-কর্মিদের প্রত্যাশা আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও এই আসন থেকে খালেদা জিয়া প্রার্থী হবেন। তবে দলের শীর্ষনেতা বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান প্রার্থী না হলে বিকল্প সম্ভাব্য প্রার্থী হতে পারে বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা সাবেক এমপি হেলালুজ্জামান তালুকদার লালু। তবে আওয়ামীলীগ আসনটি পেতে ভোটের মাঠ শুরু করেছে। আর জোটভূক্ত নির্বাচন হলে জাতীয় পার্টিও মনোনায়ন চাইবে আসনটিতে, সেক্ষেত্রে জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী তারা। এদিকে বিএনপি মনে করে সুষ্ঠু নির্বাচন হলে এই আসনে জয় নিয়ে তাদের চিন্তা করতে হবে না এবং আসনটি পুনরুদ্ধার করবে তারা। অপরদিকে পরপর দুইবার সরকার গঠনের পর দল গোছানোর সুযোগ হয়েছে আওয়ামীলীগের এ কারনে তারা মানতে নারাজ বগুড়া মানেই বিএনপির ঘাটি।
২০১৪ সালের ৫জানুয়ারী নির্বাচনে মহাজোট থেকে জাতীয় পার্টিকে আসনটি ছেড়ে দেয়ায় এবং বিএনপি নির্বাচনে না আসায় লাঙল মার্কা বিজয়ী হয়। এবারও আসনটিতে ভোটযুদ্ধে শরীক হয়ে ক্ষমতা ধরে রাখাতে চায় তারা। এমনটাই জানিয়েছেন জাপার নেতা-কর্মিরা।
বিএনপির দূর্গখ্যাত এই আসনে নবম সংসদের উপ-নির্বাচনের পর থেকে আ’লীগের জনপ্রিয়তা বেড়ে গেছে এমনটাই দাবী আ’লীগ নেতা-কর্মিদের। তারা আশাবাদী এ আসন থেকে বিপুল ভোটের ব্যবধানে নৌকার জয় হবে। এ কারনে আ’লীগ থেকে মনোনায়ন পেতে হাই কমান্ডে লবিং শুরু করেছেন অনেকেই। মনোনায়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তারা হলেন, বগুড়া জেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি ও বিএমএ বগুড়া শাখার সভাপতি ডা.মোস্তফা আলম নান্নু, জেলা আ’লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক টি জামান নিকেতা, সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান আসাদুর রহমান দুলু। এদিকে এই আসনের মাঠ পর্যায়ের বিএনপি নেতা-কর্মিদের প্রত্যাশা দলের শীর্ষ নেতৃবৃন্দদের মধ্যে থেকেই এ আসনের প্রার্থী হবেন। তবে দলের শীর্ষনেতাদের মধ্যে কেউ প্রার্থী না হলে দলের প্রয়োজনে হাই কমান্ডের নির্দেশে দলীয় মনোনায়ন চাইতে পারেন জেলা বিএনপির কৃষি বিষয়ক সম্পাদক ও শাজাহানপুর উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবুল বাশার এবং জেলা বিএনপির সদস্য ও শাজাহানপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সরকার বাদল। এই আসনে জাতীয় পার্টির নেতা বর্তমান এমপি এ্যাড: আলতাফ আলী সম্ভাব্য প্রার্থী। তবে দুই উপজেলার জাপার নেতাকর্মিদের সঙ্গে তার কোন সম্পৃক্ততা না থাকায় তিনি অনেকটা জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছেন বলে নেতাকর্মিরা জানিয়েছেন। এ আসনে জেলা জাপার সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক ছাত্রনেতা লুৎফর রহমান স্বপন ও শাজাহানপুর উপজেলার জাতীয় পার্টির সভাপতি আব্দুল হান্নান মনোনায়ন প্রত্যাশী। এছাড়াও জাতীয় পার্টি(জে.পি) থেকে দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও বগুড়া জেলা সভাপতি আব্দুল মজিদ সরকার এবং বিকল্পধারা বাংলাদেশ বগুড়া জেলা শাখার সভাপতি রোটা: মেজবাউল আলমও মনোনায়ন প্রত্যাশী। তবে নির্বাচন নিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামের এখন পর্যন্ত কোন তৎপরতা দেখা যাচ্ছে না।
শাজাহানপুর উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি আব্দুল হান্নান জানান, দলের প্রয়োজনে নির্বাচনে যেতে আমি প্রস্তুত। তবে দল যাকে প্রয়োজন মনে করবে তাকেই মনোনায়ন দিবে এবং ঐক্যবদ্ধভাবে আমরা মাঠে কাজ করবো।
শাজাহানপুর উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবুল বাশার জানান, আমরা আশা করছি বগুড়া-৭ (গাবতলী-শাজাহানপুর) আসনে অবশ্যই বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া অথবা দেশনায়ক তারেক রহমান নির্বাচন করবেন এবং বিজয়ের ব্যাপারে আমরা শতভাগ নিশ্চিত। কারন বিগত সময়ে আওয়ামীলীগের জুলুম নির্যাতনে দুই উপজেলাবাসী অতিষ্ট হয়ে উঠেছে। ফলে রেকর্ড পরিমান ভোটের ব্যবধানে আমরা বিজয় অর্জন করবো। এ আসন থেকেই আগামী দিনে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের নির্দেশে সরকার পতনের দূর্বার আন্দোলন গড়ে তোলা হবে। কোন কারনে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতারা নির্বাচনে না আসলে সেক্ষেত্রে দল যাকে মনোনায়ন দিবে আমরা সকলে ঐক্যবদ্ধভাবে তার জন্য কাজ করবো।

মন্তব্য

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*