সর্বশেষ সংবাদ
Home » জাতীয় » খোকাকে প্রশংসায় ভাসালেন রাজনৈতিক সহকর্মীরা

খোকাকে প্রশংসায় ভাসালেন রাজনৈতিক সহকর্মীরা

সর্ব সাধারণের শ্রদ্ধায় সিক্ত হলেন ঢাকার সাবেক মেয়র মুক্তিযোদ্ধা সাদেক হোসেন খোকা। জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় খোকার জানাজায় নিজ দলের নেতাকর্মী ছাড়াও অংশ নেন আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন দলের নেতা। রাজনৈতিভাবে ভিন্ন মতাদর্শের হলেও তার বর্ণাঢ্য কর্মময় জীবনের প্রশংসা করেন সকলেই। এরপর সর্ব সাধারণের শ্রদ্ধার জন্য নেয়া হয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এবং তার দীর্ঘদিনের দলীয় রাজনৈতিক কার্যালয় নয়াপল্টনে। সেখানে শেষবারের মতো নেতাকে দেখতে ভিড় করেন বিএনপির নেতাকর্মীরা। জুরাইন কবরস্থানে তাকে দাফন করার কথা রয়েছে।গেরিলা মুক্তিযোদ্ধা থেকে জননেতা। মানবসেবা যার ব্রত ছিলো সেই সাদেক হোসেন খোকাকে শেষ বিদায় জানাতে ভিড় করেন দল মত নির্বিশেষে সর্বস্তরের জনতা। বৃহস্পতিবার (৭ নভেম্বর) দুপুর বারোটা থেকে একটা পর্যন্ত জাতীয় শহীদ মিনারে তাকে ফুলেল শ্রদ্ধা জানানো হয়। স্মৃতিচারণ করেন তার দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক সহকর্মীরা।রাশেদ খান মেনন বলেন, সব ক্ষেত্রে তিনি ভূমিকা পালন করেছেন।বিএনপি নেতা মওদুদ আহমেদ বলেন, তার এই চলে যাওয়ায় আমাদের দলের অনেক বড়  ক্ষতি হল।সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেন, রাজনীতির মত পার্থক্য থাকলেও ব্যক্তি জীবনে তিনি একজন চমৎকার মানুষ ছিলেন। মার্জিক একজন ব্যক্তি ছিলেন।এর আগে সংসদ সদস্য হিসেবে তিন বার নির্বাচিত সাদেক হোসেন খোকার জানাজা হয় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায়। বেলা এগারোটার অনুষ্ঠিত জানাজায় পরিবারের সদস্য ছাড়াও আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও বামপন্থীসহ বিভিন্ন দলের নেতারা অংশ নেন।জানাজা শেষে তার জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চান পরিবারের সদস্যরা।খোকার ছেলে বলেন, আপনারা সবাই আমার বাবার জন্য দোয়া করবেন। আল্লাহ যেন তাকে বেহেশত নসীব করেন। যদি তিনি কোন ভুল করে থাকেন আমি তার পক্ষ থেকে ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি।শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা জানানো শেষে সাদেক হোসেন খোকার মরদেহ নেয়া হয় তার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে। তাকে শেষবারের মতো দেখতে ভিড় জমান নেতাকর্মীরা।সিটি করপোরশনের সকল কর্মকর্তা কর্মচারীদের শ্রদ্ধার জন্য বিকেল ৩টায় দক্ষিণ সিটি করপোরেশন ভবনের সামনে নেয়া হবে অভিভক্ত ঢাকা সিটির সাবেক মেয়রকে। এরপরই নিজ বাসভবন গোপীবাগ থেকে পুরান ঢাকার ধুপখোলা মাঠে শেষ জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। রাষ্ট্রীয় সম্মান জানানো শেষে জুরাইন কবরস্থানে তাকে দাফনের কথা রয়েছে। গেল সোমবার (৪ নভেম্বর) দুপুরে যুক্তরাষ্ট্রে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান এই মুক্তিযোদ্ধা।

মন্তব্য

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*