Logo
সংবাদ শিরোনাম :
ফাপোর আন্তঃ ইউনিয়ন ফুটবল টুর্নামেন্টে অনুষ্টিত। টুঙ্গিপাড়া গ্রাম থেকে বিশ্বমানবতার নেত্রী ছাত্রদলে মিছিলে ছাত্রলীগের হামলার প্রতিবাদে বগুড়া জেলা ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল নওগাঁয় ভুট্টাক্ষেত থেকে শিশুর হাত-পা বাঁধা লাশ উদ্ধার গাজীপুরে গোডাউনে মিলল টিসিবি পণ্য চীনে ১৩৩ যাত্রী নিয়ে বিমান বিধ্বস্ত বগুড়ায় পিকনিকে হামলা করে যুবককে কুপিয়ে হত্যা একশত টাকা মূল্যমানের প্রাইজ বন্ডের ১০৬তম ‘ড্র’ অনুষ্ঠিত !! বগুড়া শহরে প্রথম চার তারকা হোটেল নাজ গার্ডেন বিক্রি বগুড়ার দুপচাঁচিয়া উপজেলার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের নেত্রী মাহবুবা নাসরিন রুপাকে জেলা আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার




ইয়াবা’র বিকল্প এখন পেন্টাডলওসিনটা ঔষধ ফার্মেসীতে

প্রতিবেদকের নাম :
আপডেট করা হয়েছে : মঙ্গলবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৯

গোলজার রহমান   সর্বনাশা ইয়াবা-হেরোইন এর বিকল্প হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে বিভিন্ন কোম্পানির ব্যাথানাশক কিছু ট্যাবলেট। যার ভয়াবহ নেশায় আসক্ত হয়ে পড়ছে  প্রায় অধিকাংশ তরুণ ও যুবক। এমনকি এ ভয়াবহ নেশায় আসক্ত হচ্ছে ছাত্র সমাজ । বিশেষ করে মাদকসেবীদের একটি বড় অংশ টেপেন্টাডল (৫০ এমজি), পেন্টাডল (৫০ এমজি), পেন্টাডল (৭৫ এমজি), পেন্টাডল (১০০ এমজি), সিনটা (৫০ এমজি), নোপেন্টা (৫০ এমজ) সহ বিভিন্ন ঔষধের নেশা’য় আসক্ত হয়ে পড়ছে। ঔষধ ফার্মেসীগুলোতে দেদারছে বিক্রি করা হচ্ছে ভয়াবহ এসব ট্যাবলেট। একশ্রেণীর অসাধু ঔষধ ব্যবসায়ী অধিক মুনাফা লাভের আশায় ফার্মেসী ব্যাবসার আড়ালে চিকিৎসকের কোন প্রকার ব্যবস্থা পত্র ছাড়াই ওই ঔষধগুলি বিক্রয় করছে।এসব ক্রয়ে কোন বাঁধা না থাকায় খুব সহজেই এসব ঔষধ হাতের লাগালে পাচ্ছে তরুণ যুবক সহ শিক্ষার্থীরা। প্রথম কৌতুহল বশত: ঘুম না হওয়া, শরিরের ব্যথা অনুভব সহ বিভিন্ন হতাশা দূর করার কথা বলে এসব ট্যাবলেট ব্যবহার করে রীতিমত আসক্ত হয়ে পড়ছে তারা। আসক্তি’র কারনে যেমন বাড়ছে স্বাস্থ্য ও অর্থ ঝুঁকি ধ্বংস হচ্ছে তাদের আগামীর জীবন সে সাথে চলছে পরিবারে অশান্তির ঘণঘাটা।জেমন বাল্য বিবাহ বিবাহ বিচ্ছেদ সহ হানা হানি মারা মারিএমন কি বাবা মাকেও মারতে দিধা নাই এসব ঔষধ সেবনে অনেকে হারিয়ে ফেলতে পারে মানসিক ভারসাম্য বলে জানা গেছে। অনুসন্ধানে জানা গেছে,শিবগঞ্জ উপজেলার মেইন রোড, মহাস্থান মাজার গেট,ডাকবাংলো, রোড সহ বাজারের বিভিন্ন মোড়ে এবংশিবগঞ্জ উপজেলা আমতোলি রোড মোকামতলা জয়পুর রোড কিচক পিরব গুজিয়া সহঅনেক জায়গায় অবস্থিত ঔষধ ফার্মেসীগুলোতে দেদারছে বিক্রি করা হচ্ছে এসব ঔষধ। ঔষধের দাম গড়ে ১০-১১ টাকা। কিন্তু বাজারে সংকট সৃষ্টি হওয়ার ফলে ৮০-১০০ টাকাও নেয় ফার্মেসি মালিকেরা। পরিবারের অগোচরে এসব ঔষধ সেবনে আসক্ত হয়ে পড়ছে এলাকার উঠতি বয়সের তরুণ ও যুব সমাজ। এ ধরণের মাদকাসক্তি নিরাময়ে শিঘ্রই সামাজিক পারিবারিক প্রতিরোধ গড়ে তোলা সহ এসব অসাধু ব্যাবসায়ীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কঠোর আইনী হস্তক্ষেপ কামনা করছেন এলাকার ভুক্তভুগী পরিবারগন। এসব ঔষধ গুলো রোগের জন্য নিঃসন্দেহে ভালো। কিন্তু এসব ঔষধ যদি অবৈধ পন্থায় বিক্রয় ও অপব্যাবহার করা হয় তাহলে এর সাথে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যাবস্থা গ্রহন করা দাবি এলাকা বাশিঁর

মন্তব্য

মন্তব্য





এই ধরনের আরও খবর

ফেসবুকে আমরা




Theme Created By ThemesDealer.Com