Logo
সংবাদ শিরোনাম :
ফাপোর আন্তঃ ইউনিয়ন ফুটবল টুর্নামেন্টে অনুষ্টিত। টুঙ্গিপাড়া গ্রাম থেকে বিশ্বমানবতার নেত্রী ছাত্রদলে মিছিলে ছাত্রলীগের হামলার প্রতিবাদে বগুড়া জেলা ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল নওগাঁয় ভুট্টাক্ষেত থেকে শিশুর হাত-পা বাঁধা লাশ উদ্ধার গাজীপুরে গোডাউনে মিলল টিসিবি পণ্য চীনে ১৩৩ যাত্রী নিয়ে বিমান বিধ্বস্ত বগুড়ায় পিকনিকে হামলা করে যুবককে কুপিয়ে হত্যা একশত টাকা মূল্যমানের প্রাইজ বন্ডের ১০৬তম ‘ড্র’ অনুষ্ঠিত !! বগুড়া শহরে প্রথম চার তারকা হোটেল নাজ গার্ডেন বিক্রি বগুড়ার দুপচাঁচিয়া উপজেলার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের নেত্রী মাহবুবা নাসরিন রুপাকে জেলা আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার




শাজাহানপুরে যৌতুক না দেওয়ায় অন্ত:সত্ত্বা স্ত্রীকে ফেলে পালালো স্বামী

প্রতিবেদকের নাম :
আপডেট করা হয়েছে : বুধবার, ৩ জুলাই, ২০১৯

স্টাফ রিপোর্টার: বগুড়ার শাজাহানপুরে যৌতুকের টাকা না দেওয়ায় ৫ মাসের অন্ত:সত্ত্বা স্ত্রীকে রেখে পালিয়ে গেছে স্বামী। এ বিষয়ে ওই ভূক্তভোগি স্ত্রী রিবা বেগম(২১) বাদী হয়ে গতকাল মঙ্গলবার শাজাহানপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন।
অভিযুক্তরা হলেন, তার স্বামী দুখু মিয়া, শ^শুর আবদুর খালেক, শ^াশুরী শহিদা বেগম, ভাসুর মো. সোহাগ, এছাড়াও অন্যান্য অভিযুক্তরা হলেন, দুখু মিয়ার প্রতিবেশী মোছা.হেনা বেগম ও হেনা বেগমের স্বামী আবদুর রাজ্জাক এবং দুখু মিয়ার বন্ধু মো. জুয়েল। রিবা বেগমের অভিযোগ তার স্বামীসহ শ^শুর বাড়ির লোকজন যৌতুকের এক লক্ষ টাকার জন্যে প্রায়ই তাকে মারধর করতেন।
রিবা বেগম উপজেলার লতিফপুর দক্ষিণপাড়া গ্রামের মো. আনোয়ার হোসেনের মেয়ে। তার স্বামী দুখু মিয়া উপজেলার খোট্টাপাড়া ইউনিয়নের দুরুলিয়া গ্রামের আবদুল খালেকের পুত্র।
রিবা বেগম ও তার মা রেহেনা বেগমের অভিযোগ, রিবা বেগম দুখু মিয়ার দ্বিতীয় স্ত্রী। প্রায় ৭ মাস পূর্বে তাদের বিয়ে হয়। বিয়ের আগে দুখু মিয়া তার প্রথম স্ত্রী মোছা. নূপুর বেগমকে ডিভোর্স দেয়। অপরদিকে রিবা বেগমকে বিয়ের কিছুদিন পর থেকে যৌতুকের একলক্ষ টাকার জন্যে চাপ দিতে থাকে এই দুখু মিয়া। যৌতুকের টাকা দিতে না পারায় দুখু মিয়াসহ শ^শুর বাড়ির লোকজন রিবার ওপর প্রায়ই নির্মম নির্যাতন করতো। অবশেষে গত ৭ জুন দুখু মিয়া তার প্রথম স্ত্রী নূপুর বেগমকে পুনরায় বিয়ে করে। ওই দিনই কৌশলে রিবা বেগম সঙ্গে নিয়ে লতিফপুর দক্ষিণপাড়া গ্রামে তার বাবার বাড়িতে বেড়াতে আসে দুখু মিয়া। এক পর্যায়ে রিবা বেগমকে সেখানে রেখে পালিয়ে যায় দুখু মিয়া। এরপর থেকে তার আর কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি। পরবর্তিতে তারা জানতে পেরেছেন দুখু মিয়া নূপুর বেগমকে নিয়ে পালিয়ে গিয়ে সংসার করছেন। এখন পর্যন্ত বাবার বাড়িতেই অবস্থান করছেন রিবা বেগম।
রিবা বেগম তার যৌতুক লোভী ও প্রতারক স্বামীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।
এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত অভিযুক্তদের সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।
এসআই নুর ইসলাম জানান, অভিযোগ পাওয়া গেছে। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্তব্য

মন্তব্য





এই ধরনের আরও খবর

ফেসবুকে আমরা




Theme Created By ThemesDealer.Com