Logo
সংবাদ শিরোনাম :
হাতিরঝিলে ছেঁড়া কাগজের সূত্র ধরে ক্লুলেস হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন শাজাহানপুর উপজেলা চেয়ারম্যানের জন্মদিনে এতিমশিশুদের মাঝে খাবার বিতরণ শাজাহানপুরে আশেকপুর ইউনিয়ন বিট পুলিশিং’র সমাবেশ গাইবান্ধায় জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের কর্মী সমাবেশ সাদুল্লাপুরে বিট পুলিশিং এর আয়োজনে নারী ধর্ষণ ও নির্যাতনের বিরুদ্ধে সমাবেশ শেরপুরে শিশুছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে একজন গ্রেফতার বগুড়া সারিয়াকান্দি উপজেলা ও পৌরশাখা তৃণমূল পর্যায়ের নেতৃবৃন্দের মাঝে ফরম বিতরণ বগুড়ায় জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) অভিযানে ডাকাতি মামলার ৪ আসামী গ্রেফতার সিরাজগঞ্জের শাহাজাদপুরে ৪০ কেজি গাঁজা সহ ২ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১২ নিজের মেয়ের ধর্ষকদের ফাঁসির দাবিতে শহীদ মিনারে পোষ্টার বুকে নিয়ে এক ঘন্টা একাই দাড়ালেন বাবা।




কে সেরা ব্রাজিল নাকি আর্জেন্টিনা ?

ডেস্ক নিউজ
আপডেট করা হয়েছে : বুধবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৯

ব্রাজিল আর্জেন্টিনার দ্বৈরথের সাথে পাল্লা দিয়ে চলে ভক্তদের দ্বৈরথ। একই পরিবারের মাঝে, বন্ধু মহলে কিংবা প্রিয়জনের মাঝে দেখা যায় কেউ ব্রাজিল এর সমর্থক কেউবা আর্জেন্টিনার। ফলশ্রুতিতে, নানাবিধ তর্কে-বিতর্কে জর্জরিত হয়ে থাকে চারপাশ। বাসে-ট্রেনে-অফিসে-আড্ডায়-চায়ের কাপে সব জায়গায় আলোচনা একটাই। কে সেরা? ব্রাজিল নাকি আর্জেন্টিনা!

দুই দলের মুখোমুখি লড়াইয়েও যে তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতা থাকে পরিসংখ্যানের দিকে চোখ বুলালেই হিসাবটা দেখা যায়।

১৯১৪ সাল থেকে এ পর্যন্ত ১১১ ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা। দুইদলের শতবর্ষীয় লড়াইয়ে কখনোই একে অপরকে ছেড়ে কথা বলেনি কেউ। ১৯১৪ সালের ২০শে সেপ্টেম্বর নিজেদের প্রথম ম্যাচে ব্রাজিলকে ৩-১ গোলে হারায় আর্জেন্টিনা। কিন্তু মাত্র ৭ দিন পরই নিজেদের পরিচয় দেয় সেলেকাওরা। ১-০ গোলের ব্যবধানে অ্যালবিসেলেস্তেদের বিপক্ষে নিজেদের প্রথম জয় তুলে নেয় তারা। এখন পর্যন্ত ১১১ বারের লড়াইয়ে ৪০টিতে জয়ের দেখা পায় কেম্পেস-ম্যারাডোনা-মেসির আর্জেন্টিনা। বিপরীতে তাদের থেকে কিছুটা এগিয়ে ৪৬ ম্যাচে জয়ের দেখা পেয়েছে পেলে-গারিঞ্চা-রোনাল্ডোর ব্রাজিল। দুই দলের মধ্যকার ২৫টি ম্যাচ ড্র হয়েছে। আর্জেন্টিনার ১৬০টি গোলের বিপরীতে মাত্র দুই গোলে এগিয়ে ১৬৩ বার জালের দেখা পেয়েছে ব্রাজিল।

প্রীতি ম্যাচে ৫৯ বারের দেখায় এগিয়ে আছে ব্রাজিল। সেলেকাওদের ২৪ জয়ের বিপরীতে ২০ জয় আছে অ্যালবিসেলেস্তেদের ঝুলিতে। এছাড়া বাকি ১৫ ম্যাচে কোন ফলাফল আসেনি। প্রীতি ম্যাচের মতো বিশ্বকাপের বাছাই পর্ব, বিশ্বকাপের মূল পর্ব এমনকি ফিফা কনফেডারেশন কাপেও এগিয়ে আছে ব্রাজিল। বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে এখন পর্যন্ত ৮ বার মুখোমুখি হয়েছে দুইদল। যেখানে ব্রাজিলের ৪ জয়ের বিপরীতে আর্জেন্টিনা জিতেছে ২টিতে, বাকি ২টি ম্যাচ ড্র হয়েছে।

ভৌগলিক অবস্থানগত ভাবে এই দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দল লাতিন আমেরিকার হওয়ায় বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে সাক্ষাত হয়নি কখনো। বিশ্বকাপে তাদের প্রথম সাক্ষাত হয় বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার আরও ৪৪ বছর পর। ১৯৭৪ বিশ্বকাপের দ্বিতীয় রাউন্ডে প্রথমবার মাঠের যুদ্ধে মুখোমুখি হয় লাতিন ফুটবলের দুই পরাশক্তি। বিশ্বকাপের মূল পর্বে ৪ দেখায় ২টিতে জয় পেয়েছে ব্রাজিল, ১টিতে আর্জেন্টিনা এবং ১টি ম্যাচ ড্র হয়। ১৯৯০ সালের পর অবশ্য এ দুই দল বিশ্বকাপে মুখোমুখি হয়নি। ফিফা কনফেডারেশন কাপের একমাত্র ম্যাচেও আর্জেন্টিনার বিপক্ষে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ব্রাজিল।

তবে আর্জেন্টাইন সমর্থকদের হতাশ হওয়ার কিছু নেই। তাদের চোয়ালের জোড় কাজে আসতে পারে কোপা আমেরিকার ক্ষেত্রে। যেখানে আর্জেন্টিনার ধারে কাছেও নেই ব্রাজিল। ১৯১৬ সাল থেকে শুরু হওয়া ফিফার স্বীকৃত সবচেয়ে পুরোনো এই টুর্নামেন্টে ২৯ দেখার ১৫ ম্যাচেই জয় পেয়েছে অ্যালবিসেলেস্তেরা। তাদের বিপরীতে মাত্র ৭ ম্যাচে জয় পেয়েছে সেলেকাওরা। বাকী ৭ ম্যাচে কোন ফলাফল আসেনি।

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের বিপক্ষে বড় জয়ঃ

১৯৪০ সালে বুয়েন্স আয়ার্সে ৬-১ গোলের ব্যবধানে ব্রাজিলকে পরাজিত করে আর্জেন্টিনা। ঘরের মাঠে এটিই তাদের সবচেয়ে বড় জয়। আর অ্যাওয়ে ম্যাচে সেলেকাওদের বিপক্ষে বড় জয় ৫-১ গোলের ব্যবধানে। অন্যদিকে, ১৯৪৫ সালে রিও ডি জেনিরোতে ৬-২ গোলের ব্যবধানে আর্জেন্টিনাকে পরাজিত করে ব্রাজিল। ঘরের মাঠে যেটি তাদের সবচেয়ে বড় জয়। আর অ্যাওয়ে ম্যাচে অ্যালবিসেলেস্তেদের বিপক্ষে বড় জয় ৪-১ গোলের ব্যবধানে।

মন্তব্য

মন্তব্য





এই ধরনের আরও খবর

ফেসবুকে আমরা




Theme Created By ThemesDealer.Com