Logo
সংবাদ শিরোনাম :
ফাপোর আন্তঃ ইউনিয়ন ফুটবল টুর্নামেন্টে অনুষ্টিত। টুঙ্গিপাড়া গ্রাম থেকে বিশ্বমানবতার নেত্রী ছাত্রদলে মিছিলে ছাত্রলীগের হামলার প্রতিবাদে বগুড়া জেলা ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল নওগাঁয় ভুট্টাক্ষেত থেকে শিশুর হাত-পা বাঁধা লাশ উদ্ধার গাজীপুরে গোডাউনে মিলল টিসিবি পণ্য চীনে ১৩৩ যাত্রী নিয়ে বিমান বিধ্বস্ত বগুড়ায় পিকনিকে হামলা করে যুবককে কুপিয়ে হত্যা একশত টাকা মূল্যমানের প্রাইজ বন্ডের ১০৬তম ‘ড্র’ অনুষ্ঠিত !! বগুড়া শহরে প্রথম চার তারকা হোটেল নাজ গার্ডেন বিক্রি বগুড়ার দুপচাঁচিয়া উপজেলার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের নেত্রী মাহবুবা নাসরিন রুপাকে জেলা আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার




বগুড়ার শিবগঞ্জে এবার সিসি ক্যামেরা নিয়ন্ত্রণে চলছে বালুদস্যুদের বানিজ্য

গোলাম রব্বানী শিপন, স্টাফ রিপোর্টারঃ
আপডেট করা হয়েছে : বৃহস্পতিবার, ৩০ এপ্রিল, ২০২০

বগুড়ার শিবগঞ্জে অভিনব কায়দায় এবার সিসি ক্যামেরা নিয়ন্ত্রণে চলছে বালুদস্যুদের অবৈধ বালু বানিজ্য।নেপথ্যে শিবগঞ্জের স্থানীয় এক সিনিয়র মিডিয়া কর্মীর সহযোগীতায় প্রতিনিয়ত উপজেলার আলাদীপুর কাজীপাড়া ড্রেজার দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করায় ক্ষত বিক্ষত হচ্ছে এলাকার ফসলি জমি। জানা যায়, এই বালুর পয়েন্ট প্রথমে ওই এলাকার আইয়ুব আলী নামের এক ব্যক্তি উত্তোলণ করা শুরু করে। আইয়ুব আলী কোন এক মামলায় হাজতে বসবাস করছে। বর্তমান এই বালুর রাজত্ব করছে তার ছেলে হাসান আলী। তাকে সহযোগীতা করছে এক মিডিয়া কর্মী ও এলাকার কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তি। তাদের ভয়ে প্রতিবাদ করতে সাহস পায় না ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাবাসীরা।
স্থানীয় পর্যায়ে লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, শিবগঞ্জ সদর ইউনিয়নের আলাদীপুর কাজীপাড়া (এম.কে.বি) ইট ভাটার পাশে অবস্থিত অবৈধ ভাবে উত্তোলণ করা বালুর পয়েন্ট। এই পয়েন্ট থেকে প্রায় আধা কিলোমিটার পর্যন্ত ২টি সিসি ক্যামেরা লাগিয়ে রেখেছেন বালুদস্যু চক্র। রাস্তার পাশে বালু মনিটর অফিস বসিয়ে সিসি ক্যামেরায় তদারকি করেন কে বা কারা এলাকায় আসা–যাওয়া করছেন। অনেক সময় সাংবাদিক বা পুলিশ এলে আগে থেকেই সর্তক হয়ে শূণ্য হয়ে যায় বালুর পয়েন্ট।আর এই সিসি ক্যামেরার কৌশল অবলম্বন করে নিয়মিত অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। যা অবৈধভাবে বালু ব্যবসার একটি সারাজ্য গড়ে তোলা হয়েছে। কাউকে তোয়াক্কা না করে বীরদর্পে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে।অনুসন্ধানে আরো দেখা গেছে, বালু বহনের কারণে উপজেলার গ্রামের সরকারি পাকা সড়ক গুলো ভেঙে খানাখন্দে পরিনত হয়েছে। এখানে ড্রেজার চালক কয়েকজন শ্রমিকের সাথে এ ব্যাপারে জিজ্ঞেস করলে তারা বলেন, আমাদের কি দোষ আমরা শ্রমিক হিসাবে কাজ করি। সচেতন এলাকাবাসী অভিনব কায়দায় সিসি ক্যামেরার আওতায় এই অবৈধ বালুদস্যুদের হাত থেকে জমি রেহায় পেতে দ্রুত প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

মন্তব্য

মন্তব্য





এই ধরনের আরও খবর

ফেসবুকে আমরা




Theme Created By ThemesDealer.Com