Logo
সংবাদ শিরোনাম :
ফাপোর আন্তঃ ইউনিয়ন ফুটবল টুর্নামেন্টে অনুষ্টিত। টুঙ্গিপাড়া গ্রাম থেকে বিশ্বমানবতার নেত্রী ছাত্রদলে মিছিলে ছাত্রলীগের হামলার প্রতিবাদে বগুড়া জেলা ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল নওগাঁয় ভুট্টাক্ষেত থেকে শিশুর হাত-পা বাঁধা লাশ উদ্ধার গাজীপুরে গোডাউনে মিলল টিসিবি পণ্য চীনে ১৩৩ যাত্রী নিয়ে বিমান বিধ্বস্ত বগুড়ায় পিকনিকে হামলা করে যুবককে কুপিয়ে হত্যা একশত টাকা মূল্যমানের প্রাইজ বন্ডের ১০৬তম ‘ড্র’ অনুষ্ঠিত !! বগুড়া শহরে প্রথম চার তারকা হোটেল নাজ গার্ডেন বিক্রি বগুড়ার দুপচাঁচিয়া উপজেলার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের নেত্রী মাহবুবা নাসরিন রুপাকে জেলা আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার




বগুড়ায় এক পরিবারে তিনজন করোনায় আক্রান্ত

স্টাফ রিপোর্টার
আপডেট করা হয়েছে : বুধবার, ৬ মে, ২০২০
ছবি: সংগৃহীত

বগুড়ার শাজাহানপুরে করোনায় (কোভিড-১৯) অাক্রান্তের খবর পেয়ে আত্মগোপনে থাকা ঢাকা ফেরত এক ব্যক্তির স্ত্রীর পর তাদের ১২ বছরের ছেলেও এ রোগে আক্রান্ত হয়েছে।

এর আগে, গত ২৫ এপ্রিল ঢাকা ফেরত ওই ব্যক্তি বগুড়া শজিমেক হাসপাতালের করোনা ল্যাবে নমুনা দিয়ে আসেন। ২৮ এপ্রিল সেখান থেকে দেয়া রিপোর্টে তাকে পজিটিভ উল্লেখ করা হয়। নমুনা পরিক্ষা করা হলে গত ১ মে তার স্ত্রীর করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে।
গতকাল মঙ্গলবার এই দম্পতির ছেলেরও করোনা পজেটিভ রিপোর্ট এসেছে। এই ছেলেকে নিয়েই ওই ব্যক্তি আত্মগোপনে ছিলেন।
স্বামীর পর স্ত্রী ও ছেলের করোনায় আক্রান্তের বিষয়টি নিশ্চিত করেন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মোতারব হোসেন।
আক্রান্ত ওই স্ত্রী বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালের একজন সিনিয়র স্টাফ নার্স।
অপরদিকে, ওই ব্যক্তি এক ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধি। তিনি ঢাকায় কর্মরত ছিলেন। ঢাকা থেকে ফিরে তিনি উপজেলার জাহাঙ্গীরাবাদ ফুলতলা এলাকায় তাদের ভাড়া বাড়িতে উঠেন। কিন্তু করোনায় আক্রান্তের খবর পেয়েই গত ২৮ এপ্রিল বিকেলে ভাড়া বাড়ি থেকে পালিয়ে গিয়েছিলেন তিনি। পরদিন গত ২৯ এপ্রিল রাতে তার গ্রামের বাড়ি বগুড়ার শেখেরকোলা গ্রাম থেকে উদ্ধার করে সেখানেই হোম আইসোলেশনে রাখা হয় তাকে।
আক্রান্ত নার্স বলেন, ‘গত ১০ এপ্রিল আমার স্বামী ঢাকা থেকে বাড়িতে ফেরে। করোনার উপসর্গ দেখা দিলে শজিমেক হাসপাতালের করোনা ল্যাবে তার নমুনা দেওয়া হয়। পরে ২৮ এপ্রিল তার রিপোর্ট করোনা পজেটিভ আসে। ওই দিন বিকেলে ছেলেকে সঙ্গে নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে গিয়েছিল সে।’
বর্তমানে ওই ব্যক্তি ও তার ছেলে তাদের গ্রামের বাড়ি সদর উপজেলার শেখেরকোলা গ্রামে রয়েছেন। সেখানেই তাদের হোম আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। অপরদিকে ওই ব্যক্তির নার্স স্ত্রীকে শাজাহানপুর উপজেলায় তাদের ভাড়া বাড়িতে হোম আইসোলেশনে রাখা হয়েছে।
উপজেলায় এখন পর্যন্ত চারজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। অপরজন উপজেলার বিব্লক এলাকার ২৮ বছর বয়সের এক নারী। তিনিই উপজেলার প্রথম করোনা রুগী। তিনি বিবাহিত এবং গৃহিণী । বর্তমানে এই গৃহিণী অনেকটা সুস্থ্য হয়েছেন বলে তার স্বামী জানিয়েছেন।
উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মোতারব হোসেন জানান, ‘উপজেলায় প্রথম করোনা রুগী সনাক্ত হওয়া ওই নারীর নমুনা সংগ্রহ করে করোনা ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট আসলে জানতে পারবো তিনি সুস্থ্য হয়েছেন কিনা।

মন্তব্য

মন্তব্য





এই ধরনের আরও খবর

ফেসবুকে আমরা




Theme Created By ThemesDealer.Com